মার্শাল পরিকল্পনা কী? মার্শাল পরিকল্পনার উদ্দেশ্য কী?

টেলিগ্রাম এ জয়েন করুন

Table Of Contents

মার্শাল পরিকল্পনা কী? মার্শাল পরিকল্পনার উদ্দেশ্য কী?

১৯৪৭ খ্রিস্টাব্দের ৫ জুন হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে এক বক্তৃতায় আমেরিকার বিদেশসচিব জর্জ মার্শাল এক ঘোষণায় যুদ্ধবিধ্বস্ত সমগ্র ইউরোপে আর্থিক পুনুরুজ্জীবনের পরিকল্পনা পেশ করেন যা মার্শাল পরিকল্পনা নামে পরিচিত।

মার্শাল পরিকল্পনার উদ্দেশ্য:

মার্শাল পরিকল্পনার দুটি মূল উদ্দেশ্য হল—– যুদ্ধবিধ্বস্ত ইউরোপের দেশগুলিকে অর্থসাহায্য দিয়ে তাদেরকে সোভিয়েত প্রভাব থেকে মুক্ত করা। ও মার্কিন অর্থ সাহায্যগ্রহণকারী দেশগুলিকে মার্কিন রাষ্ট্রজোটের অন্তর্ভুক্ত করা এবং তাদের বিদেশ নীতি নির্ধারণে আধিপত্য কায়েম করা।

মার্শাল পরিকল্পনার প্রকৃত উদ্দেশ্য:

1. সোভিয়েত প্রভাবমুক্ত ইউরোপ গঠন: যুদ্ধবিধ্বস্ত ইউরোপের দেশগুলিকে অর্থসাহায্য দিয়ে সোভিয়েত প্রভাবমুক্ত ইউরোপ গঠন করা।

2. আন্তর্জাতিক বাজার তৈরি: মার্কিন বাণিজ্যের স্বার্থে অর্থসাহায্যের বিনিময়ে ইউরোপের বিভিন্ন দেশগুলির অর্থনীতি মজবুত করে এক আন্তর্জাতিক বাজার গড়ে তোলা।

3. মার্কিন রাষ্ট্রজোটের শক্তিবৃদ্ধি: সাহায্যগ্রহণকারী দেশগুলিকে নিয়ে মার্কিন নেতৃত্বাধীন পুঁজিবাদী রাষ্ট্রজোটের শক্তি বাড়ানো।

4. অন্য রাষ্ট্রের বিদেশনীতি নির্ধারণ: সাহায্যগ্রহণকারী দেশগুলির অভ্যন্তরীণ বিদেশনীতি নির্ধারণের ক্ষেত্রে মার্কিন আধিপত্য কায়েম করা।

মার্শাল পরিকল্পনার আরো তথ্য জানুন:

টেলিগ্রাম এ জয়েন করুন
Share on:

1 thought on “মার্শাল পরিকল্পনা কী? মার্শাল পরিকল্পনার উদ্দেশ্য কী?”

Leave a Comment