জালিয়ানওয়ালাবাগ হত্যাকাণ্ড কি ? অথবা , জালিয়ানওয়ালাবাগ হত্যাকাণ্ড ইতিহাসে স্মরণীয় কেন ?


 জালিয়ানওয়ালাবাগ হত্যাকাণ্ড কি?  অথবা , জালিয়ানওয়ালাবাগ হত্যাকাণ্ড ইতিহাসে স্মরণীয় কেন ? 

 উত্তর:- পটভূমি: রাওলাট আইনের বিরুদ্ধে সবচেয়ে ব্যাপক গণবিক্ষোভ দেখা যায় পাঞ্জাবে । পাঞ্জাবের প্রশাসক লেফটেন্যান্ট মাইকেল ও ডায়ারের স্বৈরাচারী শাসনে পাঞ্জাববাসী ক্ষুব্ধ হয়ে ওঠে । সরকারের অত্যাচারের প্রতিবাদে ১৯১৯ খ্রিস্টাব্দের ১৩ এপ্রিল প্রায় ১০ হাজার মানুষ অমৃতসরের জালিয়ানওয়ালাবাগ নামক ঘেরা স্থানে শান্তিপূর্ণ প্রতিবাদ – সমাবেশে যােগ দেন । লালা লাজপত রায়ের মতে , পাঞ্জাববাসীর অসন্তোষের মূলে ছিল অর্থনীতি , যা ছিল সরকার কর্তৃক গৃহীত নীতিরই ফলশ্রুতি ।

>>1. নিষেধাজ্ঞা অমান্য : রাওলাট আইন – বিরােধী আন্দোলনে নেতৃত্বদান করলে গান্ধিজিকে গ্রেফতার করা হয় । এর দুদিন পরে ( ১২ এপ্রিল , ১৯১৯ খ্রি . ) জেনারেল ডায়ার অমৃতসরে সভাসমিতির ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেন । কিন্তু সেই নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে পরেরদিন ( ১৩ এপ্রিল , ১৯১৯ খ্রি . ) প্রায় দশ হাজার মানুষ অমৃতসরের জালিয়ানওয়ালাবাগ উদ্যানে জড়াে হন ।

 >> 2. হত্যাকাণ্ড : আগাম কোনাে সতর্কতা ছাড়াই জেনারেল ডায়ারের নিষ্ঠুর সেনাবাহিনী সেখানে হাজির হয়ে নিরস্ত্র মানুষের ওপর ১৬০০ রাউন্ড গুলি চালায় । এতে নিহত হন ৩৭৯ জন এবং আহত হন ১২০০ জন । সন্ধ্যাবেলায় সান্ধ্য আইন জারি করে আহতদের শুশ্রুষার সুযােগ কেড়ে নেওয়া হয় । ভারতীয় স্বাধীনতা । সংগ্রামের ইতিহাসে এই মর্মান্তিক ঘটনা জালিয়ানওয়ালাবাগ হত্যাকাণ্ড নামে পরিচিত ।

প্রতিক্রিয়া

 1. বিশ্বকবির প্রতিক্রিয়া : কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর । প্রতিবাদস্বরূপ নাইট উপাধি বর্জন করেন এবং এই বর্বরতার প্রতিবাদে । | লেখেন— “ পাঞ্জাবের দুঃখের তাপ আমার বুকের পাঁজর পুড়িয়ে । দিলে । ” রবীন্দ্রনাথ আরাে লেখেন— “ এমন একটা সময় এসেছে যখন । সম্মানসূচক চিহ্নগুলি আমাদের লজ্জার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে …। ”  2. চার্চিলের প্রতিক্রিয়া : ভাবী ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী উইনস্টন চার্চিলও এই পাশবিক হত্যাকাণ্ডের নিন্দা করে বলেন , জালিয়ানওয়ালাবাগের মতাে মর্মান্তিক ঘটনা ব্রিটিশ সাম্রাজ্যে আর কখনও ঘটেছে বলে আমার মনে হয় না ।  3. রাষ্ট্রগুরুর প্রতিক্রিয়া : রাষ্ট্রগুরু সুরেন্দ্রনাথ বন্দ্যোপাধ্যায় তীব্র সমালােচনা করে বলেন— “ জালিয়ানওয়ালাবাগ সমগ্র ভারতে এক মহাযুদ্ধের আগুন প্রজ্জ্বলিত করে । ” 4. গান্ধিজির প্রতিক্রিয়া : শান্তির পূজারি গান্ধিজিও এই ঘটনায় ক্ষুদ্ধ হয়ে ইয়ং ইন্ডিয়া ’ পত্রিকায় লেখেন— “ এই শয়তান সরকারের সংশােধন অসম্ভব , একে ধ্বংস করতেই হবে ” ( This satanic Government cannot be mended , it must be ended )

 মন্তব্য : ভারতবাসীর কাছে এই সত্য স্পষ্ট হয়ে ওঠে যে , আপসের মাধ্যমে ব্রিটিশ সরকারের কাছ থেকে কোনাে অধিকার আদায় করা যাবে না । জালিয়ানওয়ালাবাগের হত্যাকাণ্ডের ফলে সরকারের ওপর থেকে নরমপন্থীদের আস্থা সম্পূর্ণ হারিয়ে যায় ।


Leave a Comment