লেবার কার্ড বানালে কতদিন পর টাকা পাওয়া যাবে এবং কত টাকা পাবেন জানেন?

টেলিগ্রাম এ জয়েন করুন

এই প্রকল্পের আবেদন অনলাইন করা এর যাবে এই অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে গিয়ে edistrict.wb.gov.in

আজকের লেবার কার্ডে কারা আবেদন করতে পারবেন । রাজ্য ও কেন্দ্র সরকার এই প্রকল্প তৈরি করেছেন , এই প্রকল্পের নাম , নির্মাণ শ্রমিক প্রকল্প ।তবে এই প্রকল্প লেবার কার্ড নামেও পরিচিত খবর যেসমস্ত দরিদ্র দিনমুজুররা নির্মাণ কাজের সঙ্গে যুক্ত তাদের কথা মাথায় রেখেই এই প্রকল্প তৈরি করা হয়েছে । সুতরাং এই প্রকল্পে নাম নথিভুক্ত করতে হলে আপনাকে অবশ্যই একজন দিনমজুর ও নির্মাণ শ্রমিক হতে হবে ।

নির্মাণ কর্মী :

আজকের সড়কপথ , রেল , ট্রাম লাইন , সেচ নিকাশি , বিমানবন্দর , ভবন ও রাজমিস্ত্রি , বন্যা নিয়ন্ত্রণ টেলিভিশন , জল সরবরাহ বেবস্থা , টেলিফোন টাওয়ার নির্মাণ , পাইপলাইন , জলাধার , ইলেকট্রিকের তার লাগানো , তেল ও গ্যাস স্থাপন ইত্যাদি এই সমস্ত কাজের সঙ্গে যারা যুক্ত তারা এই প্রকল্পের আবেদন করতে পারবেন ।

লেবার কার্ড আবেদনের শর্তাবলী :

বয়স ১৮-৬০ বিগত এক বছরে নির্মাণ কর্মীকে নূন্যতম ৯০ দিন কাজ করে থাকতে হবে । উপরুক্ত নির্মাণ কাজের মধ্যে একটির সঙ্গে যুক্ত থাকতে হবে ।

আবেদনের জন্য কি কি কাগজপত্র লাগবে?

আধার কার্ড।
মাজকের ভোটার কার্ড ।
রেশন কার্ড ।
ব্যাংকের একাউন্ট।
পাসপোর্ট সাইজ ফটো ।
সিগনেচার অথবা টিপ সই ।

এই প্রকল্পে নথিভুক্ত নির্মাণকর্মী প্রতি মাসে যে সুবিধা পাবেন : এই ও বড় ৬০ বছর পরে ভাতা দেওয়া হয় : – ৬০ বছর পরে প্রতি মাসে ৫০০ টাকা থেকে ৮৭০ টাকা । অতিরিক্ত সুবিধা , কর্মীর মৃত্যু হয়ে গেলে তার স্ত্রী অর্ধেক ভাতা পাবেন।

মনে রাখবেন এই টাকা পাবেন ৬০ বছর পরে প্রতি মাসেই । টাকা পাবেন ৩০ তবে টাকা পাবেন তারাই যারা যারা এই প্রকল্পে নথিভুক্ত আছেন এবং এই প্রকল্পের সুযোগ সুবিধা পেতে গেলে নির্দিষ্ট আবেদনপত্র যথাযথ পূরণ করে , প্রয়োজনীয় কাগজপত্র , পরিচয়পত্র ও পাসবইয়ের প্রত্যায়িত নকল সহ সংশিষ্ট শ্ৰম কমিশনারের অফিসে জমা দিতে হবে । পাশাপাশি যে কোনও রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্কে একটি সভিংস অ্যাকাউন্ট খুলতে হবে । আবেদনপত্র মঞ্জুর হলে তার টাকা উক্ত অ্যাকাউন্টে জমা দেওয়া হবে ।

Kalikolom.com

টেলিগ্রাম এ জয়েন করুন

Leave a Comment